#ছুটি ঘোষণা করা হলেও বেতন ভাতা নিয়ে এইমাত্র যে সুখবর পেলেন সরকারি চাকরিজীবীরা

#ছুটি ঘোষণা করা হলেও বেতন ভাতা নিয়ে এইমাত্র যে সুখবর পেলেন সরকারি চাকরিজীবীরা

#ছুটি ঘোষণা করা হলেও বেতন ভাতা নিয়ে এইমাত্র যে সুখবর পেলেন সরকারি চাকরিজীবীরা

করোনাভাইরাসের কারণে সরকারি ছুটির মেয়াদ আবারও বাড়ানো হচ্ছে। সরকারের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী এবার ছুটির মেয়াদ আরও ১১ দিন বাড়ানো হচ্ছে। ফলে সাধারণ ছুটির মেয়াদ বেড়ে ২৫ এপ্রিল হবে।

অবশ্য এখনো এ সংক্রান্ত প্রজ্ঞাপন জানি করা হয়নি।

এবার নিয়ে চতুর্থবারের মতো সরকারি ছুটি বাড়ানো হচ্ছে। আজ শুক্রবার দুপুরে ছুটির মেয়াদ বাড়ানো নিয়ে আলোচনা হয়েছে।

 

মন্ত্রিপরিষদ সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম প্রথম আলোকে বলেন, ২৫ এপ্রিল পর্যন্ত ছুটির মেয়াদ বাড়ানো নিয়ে আলোচনা হচ্ছে।

করোনাভাইরাসের প্রভাবে প্রথম দফায় ২৬ মার্চ থেকে ৪ এপ্রিল পর্যন্ত ছুটি দেওয়া হয়েছিল। এরপরে ছুটি বাড়িয়ে তা ১১ এপ্রিল করা হয়। ছুটি তৃতীয় দফা বাড়িয়ে করা হয় ১৪ এপ্রিল পর্যন্ত। পরিস্থিতি বিবেচনায় নিয়ে চতুর্থ দফা পর্যন্ত ছুটি বাড়ানোর পরিকল্পনা হচ্ছে।

করোনায় আরো ১১২জন শনাক্ত, একজনের মৃত্যু,

 

বাংলাদেশে গত ২৪ ঘণ্টার নতুন করে মরণঘাতী করোনা ভাইরাস শনাক্ত হয়েছে ১১২ জনের দেহে। এ নিয়ে মোট আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়ালো ৩৩০ জনে। এছাড়া করোনায় ২৪ ঘণ্টায় প্রাণ হারিয়েছেন আরও একজন। এ নিয়ে মৃতের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ২১ জনে।

বৃহস্পতিবার (৯ এপ্রিল) দুপুরে করোনা ভাইরাস নিয়ে নিয়মিত অনলাইন ব্রিফিংয়ে স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক এসব তথ্য নিশ্চিত করেন।

 

এরআগে বুধবার (৮ এপ্রিল) ব্রিফিংয়ে আইইডিসিআর পরিচালক মীরজাদি সেব্রিনা ফ্লোরা জানান সারা দেশে ৯৮৮টি নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। এর মধ্যে ৯৮১টি পরীক্ষা করে ৫৪ জনের দেহে করোনা শনাক্ত হয়েছে। এছাড়া যারা আক্রান্ত হয়েছেন তাদের মধ্যে কেউ গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হননি।

বিশ্বে করোনা ভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা বেড়েই চলছে। সরকারগুলোর নানা পদক্ষেপেও থামানো যাচ্ছে না আক্রান্ত ও মৃত্যুর সংখ্যা। বৃহস্পতিবার রিপোর্টটি লেখা অবধি এখন পর্যন্ত এ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ১৫ লাখ ১৭ হাজার ৭৩১ জন। অন্যদিকে ভাইরাসটিতে আক্রান্ত হয়ে প্রাণ হারিয়েছেন ৮৪ হাজার ৯৩ জন। আশার কথা হলো ভাইরাসটিতে আক্রান্ত হওয়ার পর সুস্থ হয়ে ঘরে ফিরেছেন ৩ লাখ ৩০ হাজার ২৬৬ জন।

 

ভাইরাসটিতে সবচেয়ে বেশি আক্রান্ত হয়েছেন যুক্তরাষ্ট্রের বাসিন্দারা। দেশটিতে এখন অব্দি আক্রান্তের সংখ্যা ৪ লাখ ৩৪ হাজার ৯২৭ জন এবং মারা গেছেন ১৪ হাজার ৭৮৮ জন। অন্যদিকে আক্রান্তের সংখ্যায় এর পরের অবস্থানেই রয়েছে স্পেন। দেশটিতে আক্রান্তের সংখ্যা ১ লাখ ৪৮ হাজার ২২০ জন। এছাড়া সেখানে মারা গেছেন ১৪ হাজার ৭৯২ জন। ইতালিতে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ১ লাখ ৩৯ হাজার ৪২২ জন এবং প্রাণ হারিয়েছেন ১৭ হাজার ৬৬৯ জন।

বাংলাদেশে এখনও ২১৮ জনের শরীরে করোনা ভাইরাসের উপস্থিতি শনাক্ত হয়েছে। এরমধ্যে মারা গেছেন ২০ জন।

Share

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *