জামালপুরে ৭৪৪০ কেজি সরকারি চাল জব্ধ, ডিলার আটক

জামালপুরে ৭৪৪০ কেজি সরকারি চাল জব্ধ, ডিলার আটক

জামালপুর সদরে আওয়ামী লীগ নেতা ও খাদ্য অধিদপ্তরের ওএমএস ডিলারের গুদাম থেকে কালোবাজারে পাচারকালে সরকারি খাদ্যবান্ধব কর্মসূচির বিপুল পরিমাণ চাল বহনকারী একটি ট্রাক্টর আটক করেছে স্থানীয় জনতা। পরে ওই ট্রাক ও গুদাম থেকে ১২৬ বস্তাভর্তি সাত হাজার ৪৪০ কেজি চাল জব্দ এবং ডিলার তোফাজ্জল হোসেন তোফাকে হাতেনাতে আটক করেছে পুলিশ। আজ শনিবার ভোরে সদরের নরুন্দি ইউনিয়নের নরুন্দি বাজারে এ ঘটনা ঘটে।

সূত্র জানায়, নরুন্দি বাজারে আওয়ামী লীগ নেতা তোফাজ্জল হোসেন তোফার গুদাম থেকে খাদ্যবান্ধব কর্মসূচির চাল কালোবাজারে পাচার হওয়ার গোপন তথ্যের ভিত্তিতে স্থানীয় লোকজন গতকাল শুক্রবার মধ্যরাত থেকে ওই গুদামের আশপাশে পাহারা বসায়। রাত পোহালেই আজ শনিবার ভোরে ট্রাক্টরে করে চালের বস্তা পাচারকালে স্থানীয় লোকজন আটক করে পুলিশে খবর দেন।

নরুন্দি পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ পুলিশ পরিদর্শক মো. সজিব রহমান পুলিশ ফোর্স নিয়ে দ্রুত ঘটনাস্থলে পৌঁছে ট্রাক্টর ও গুদামের মালিক ডিলার তোফাজ্জল হোসেন তোফাকে হাতেনাতে আটক করেন। জব্দ করা ১২৬ বস্তা চাল নরুন্দি পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের জিম্মায় রয়েছে।

এদিকে চাল পাচারের খবর পেয়ে জামালপুর সদরের ইউএনও ফরিদা ইয়াছমিন, জাতীয় নিরাপত্তা গোয়েন্দা সংস্থা (এনএসআই) জামালপুর জেলা কার্যালয়ের উপ-পরিচালক মো. নূরুল আলম খান, জামালপুর সদর থানার ওসি মো. সালেমুজ্জামান ঘটনাস্থলে ছুটে যান। সরকারি চাল কালোবাজারে পাচারের অভিযোগ ওঠায় ইউএনও ফরিদা ইয়াছমিন আটক ডিলার তোফাজ্জল হোসেন তোফার বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করার নির্দেশ দিয়েছেন।

সূত্রটি আরো জানায়, ডিলার তোফাজ্জল হোসেন তোফার বাড়ি পাশের তুলসীরচর ইউনিয়নের মানিকারচর গ্রামে। তিনি ওই ইউনিয়ন শাখা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি এবং ওই ইউনিয়নের তালিকাভুক্ত ডিলার। চলমান করোনাভাইরাস পরিস্থিতিতে তুলসীরচর ইউনিয়নের কর্মহীন হতদরিদ্রদের মাঝে ১০ টাকা কেজি দরে চালগুলো বিক্রি করার কথা ছিল। তিনি নরুন্দি বাজারে নিজের গুদামে ভেতর থেকে তালা দিয়ে খাদ্য অধিদপ্তরের সিলযুক্ত চালের বস্তা খুলে সাধারণ চটের বস্তায় ভরে কালোবাজারে বিক্রির পাঁয়তারা করছিলেন।

নরুন্দি পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ পুলিশ পরিদর্শক মো. সজিব রহমান কালের কণ্ঠকে বলেন, ‘জব্দ করা ১২৬ বস্তা চালসহ আটক ডিলার তোফাজ্জল হোসেন তোফাকে তদন্ত কেন্দ্রে আনা হয়েছে। এ ব্যাপারে তার বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হবে।’

জামালপুর সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইএনও) ফরিদা ইয়াছমিন কালের কণ্ঠকে বলেন, ‘আটক ডিলার তোফাজ্জল হোসেন তোফার বিরুদ্ধে থানায় মামলা দায়ের করার জন্য খাদ্য অধিদপ্তরের কর্মকর্তাদের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে ওই ডিলার তার তুলসীরচর ইউনিয়নের চাল বিক্রির যে মাস্টাররোল দেখিয়েছেন তাতে অনেক গরমিল পাওয়া গেছে। একই সাথে তিনি বিভিন্ন জনের কাছ থেকেও চালগুলো কিনেছেন বলে দাবি করেছেন। কিন্তু সরকারি চাল এভাবে ক্রয় করার নিয়ম না থাকায় খাদ্যবান্ধব কর্মসূচির উপজেলা কমিটি তার ডিলারশিপ বাতিলের সুপারিশ করবে।’

Share

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *